রাত ১২:৩৯ | সোমবার | ২১শে জানুয়ারি, ২০১৮ ইং | ৯ই মাঘ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

“ছাঁয়া মানবী”

“ছাঁয়া মানবী”
———-
– রিয়াজ মুস্তাফিজ
“মধুমতি পাড়ের লেখিয়ে গ্রুপ”
———————————-

একটা অশরীরি ছাঁয়া আমার চারপাশে ঘুরে বেড়ায়। শত চেষ্টা করেও তাঁড়াতে পারিনি তাকে। কখনো ধোঁয়াশা আবার কখনো জমাট বাধা গোলক হয়ে আমার আশে পাশে থাকে। আমি যেখানে যাই যত দূরে, দিনে কিংবা রাতে………..

আমি অশরীরির পরিচয় জানিনা। অশরীরিকে প্রশ্ন করতেই বলে-
……আমার শরীরি অবয়ব নেই।
…….নেই কেন?
…….নষ্ট হয়ে গেছে।
……..কিভাবে?
…….. সরল বিশ্বাস ভেঙ্গেছিলাম। তাই আমার শরীর নেই।
……বিশ্বাস ভাঙ্গার সাথে শরীরের কি সম্পর্ক?
…….প্রতারনা করেছিলাম। ফলাফলে শরীর পঁচে গেছে। শরীরিরুপ কাউকে দেখাইনা। শরীর নিয়ে তোমার কাছে আসতে ঘৃনা হয়।

আমি আর কথা বাড়াইনা। কারন দেহহীনের সাথে কথা বলতে ইচ্ছে করেনা। এই ধোয়াসার কবলে পড়ে আমার সব শেষ হয়ে যাচ্ছে। আমার সাজানো ইচ্ছে গুলো চরম অনিচ্ছায় ভেসে যাচ্ছে। অশরীরির মায়ায় পড়ে চরম অনীহায় মেতেছি। সব কিছুই রুচিহীন বেস্বাদ।

এত দুরব্যবহারের পরেও দুর হয়না এই মায়ার ধোয়াসা। তাই অশরীরির মন খারাপ। ও আমায় প্রশ্ন করে…….
—- তুমি আমায় সহ্য করতে পারোনা কেন?
—–তোমার কারনে আমার উপর ধবংশের পাহাড় নেমে এসেছে।
——আমি তোমার কি ক্ষতি করেছি?
——- বাকি রেখোছো কি? আমার সব ইচ্ছেগুলোকে মেরে ফেলেছো তুমি। তুমি চলে যাও। তোমাকে দেখলে আমার গায়ে আগুন ধরে যায়। চলে যাও আর কোন দিন আসবেনা আমার কাছে। তাছাড়া তুমিতো আমার কেউ নও…….

অশরীরি আর কথা বাড়ায় না। কিছুক্ষন চুপ মেরে থাকে ধোঁয়াশার কুন্ডলী পাকিয়ে। ধীরে ধীরে জমাট বাঁধতে থাকে। খানিকটা লম্বা হয়ে একটু দূরে সরে যায়। আমি খুশি হই। অশরীরি ধোঁয়াশা বাতাসে মিলিয়ে যায়। আমি স্বস্তির শ্বাস ফেলি……..

হঠাৎ পেছন থেকে খিলখিল করে হেসে ওঠে কেউ। ঘাড় ফিরিয়ে তাকাতেই দেখি কালচে ধোঁয়াসার জমাট বাঁধা একটা মানবী দাঁড়িয়ে…….

হাসির শব্দে দুলে ওঠে চারদিক। পাখির চেচামেচি থেমে যায়। গাছের পাতার ফিসফিসানী বন্ধ হয়।। বয়ে চলা বাতাস অলসতায় দাঁড়িয়ে যায় কিছুক্ষন।

অশরীরি মানবীর হাসি থেমে যায়। শব্দ শুরু করে গাছের পাতারা। বাতাস চলতে শুরু করে শূন্যতার অনু ভেদ করে।

ধরা গলায় গভীর অপরাধবোধ নিয়ে বলতে থাকে……দেহহীন ধোঁয়াশে মানবী………
—–আমি চলে যাচ্ছি। তবে আবার আসবো। তোমার জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত থেকে যাবো, তোমার চারিপাশে প্রতিক্ষন, প্রতি মূহুর্তে।
আমার থেকে কোন দিন মুক্তি পাবেনা তুমি। কোন দিন না, কোন দিন না, না, না, না,…..
বলতে বলতে শূন্যে মিলিয়ে যায় অচেনা অশরীরি ছাঁয়া মানবী।

print

Comments

comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» খাঁন মিজানুর রহমানকে গণ সংবর্ধনা

» ভাটিয়াপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি হলেন মাহাবুব রহমান

» বহিস্কৃত হলেন আলফাডাঙ্গা উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি

» গাংনী উপজেলার মটমুড়া ইউনিয়নে শীত বস্ত্র বিতরন

» সহকারী গ্রন্থাগারিক কমিটির “কাশিয়ানী শাখা” কমিটি গঠন

» ” ওরা ভীড় করে “

» তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম ও তথ্য সচিব নাসির উদ্দিন আহমেদকে বনপা’র অভিনন্দন

» “ছাঁয়া মানবী”

» আলফাডাঙ্গা পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী চার বন্ধুর প্রতিযোগীতা

» আলফাডাঙ্গার গোপালপুরে নৌকার জয়

» আলফাডাঙ্গা ইউনিয়নে নির্বাচনী পোষ্টার ছিড়ে ফেলায় এলাকাবাসীর ক্ষোভ প্রকাশ

» বর্তমান কমিশন অনেক কঠোর: ইসি সচিব

» উন্নয়নের জন্য সকলকে নৌকার প্রার্থীর জন্য মাঠে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে: দোলন

» নতুন পরিকল্পনা নিয়ে আসছে বাংলা টকিজ

» ভাল্বের দাম সর্বোচ্চ ২৬ হাজার ও পেসমেকার ৪ লাখ

সদস্য মণ্ডলী : –

উপদেষ্টা : ডা রফিকুল ইসলাম বিজলী
আইন উপদেষ্টা : এ্যড জামাল হোসেন মুন্না
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুজাহিদুল ইসলাম নাইম
সম্পাদক ও প্রকাশক : মাহির শাহরিয়ার শিশির
বার্তা সম্পাদক: সৈকত মাহমুদ
নির্বাহী সম্পাদক : মনেম শাহরিয়ার শাওন
মফস্বল সম্পাদক : সপ্ন মাহমুদ

যোগাযোগ : –

সম্পাদকীয় কার্যালয় : ২৩/৩, তোপখানা রোড,
৪র্থ তালা (পাক্ষিক অনিয়ম এর পাশে ঢাকা - ১০০০
কর্পোরেট অফিস : সুইট :৩০০৯, লেভেল : ০৩, হাজি
আসরাফ শপিং কমপ্লেক্স, হেমায়েতপুর, সাভার, ঢাকা
09602111463,09602333111,01611354077
fb.com/bartakantho | info@bartakantho.com

Design & Devaloped BY The Creation IT BD Limited | সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © বার্তাকণ্ঠে প্রকাশিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র ও অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি।

রাত ১২:৩৯, ,

“ছাঁয়া মানবী”

“ছাঁয়া মানবী”
———-
– রিয়াজ মুস্তাফিজ
“মধুমতি পাড়ের লেখিয়ে গ্রুপ”
———————————-

একটা অশরীরি ছাঁয়া আমার চারপাশে ঘুরে বেড়ায়। শত চেষ্টা করেও তাঁড়াতে পারিনি তাকে। কখনো ধোঁয়াশা আবার কখনো জমাট বাধা গোলক হয়ে আমার আশে পাশে থাকে। আমি যেখানে যাই যত দূরে, দিনে কিংবা রাতে………..

আমি অশরীরির পরিচয় জানিনা। অশরীরিকে প্রশ্ন করতেই বলে-
……আমার শরীরি অবয়ব নেই।
…….নেই কেন?
…….নষ্ট হয়ে গেছে।
……..কিভাবে?
…….. সরল বিশ্বাস ভেঙ্গেছিলাম। তাই আমার শরীর নেই।
……বিশ্বাস ভাঙ্গার সাথে শরীরের কি সম্পর্ক?
…….প্রতারনা করেছিলাম। ফলাফলে শরীর পঁচে গেছে। শরীরিরুপ কাউকে দেখাইনা। শরীর নিয়ে তোমার কাছে আসতে ঘৃনা হয়।

আমি আর কথা বাড়াইনা। কারন দেহহীনের সাথে কথা বলতে ইচ্ছে করেনা। এই ধোয়াসার কবলে পড়ে আমার সব শেষ হয়ে যাচ্ছে। আমার সাজানো ইচ্ছে গুলো চরম অনিচ্ছায় ভেসে যাচ্ছে। অশরীরির মায়ায় পড়ে চরম অনীহায় মেতেছি। সব কিছুই রুচিহীন বেস্বাদ।

এত দুরব্যবহারের পরেও দুর হয়না এই মায়ার ধোয়াসা। তাই অশরীরির মন খারাপ। ও আমায় প্রশ্ন করে…….
—- তুমি আমায় সহ্য করতে পারোনা কেন?
—–তোমার কারনে আমার উপর ধবংশের পাহাড় নেমে এসেছে।
——আমি তোমার কি ক্ষতি করেছি?
——- বাকি রেখোছো কি? আমার সব ইচ্ছেগুলোকে মেরে ফেলেছো তুমি। তুমি চলে যাও। তোমাকে দেখলে আমার গায়ে আগুন ধরে যায়। চলে যাও আর কোন দিন আসবেনা আমার কাছে। তাছাড়া তুমিতো আমার কেউ নও…….

অশরীরি আর কথা বাড়ায় না। কিছুক্ষন চুপ মেরে থাকে ধোঁয়াশার কুন্ডলী পাকিয়ে। ধীরে ধীরে জমাট বাঁধতে থাকে। খানিকটা লম্বা হয়ে একটু দূরে সরে যায়। আমি খুশি হই। অশরীরি ধোঁয়াশা বাতাসে মিলিয়ে যায়। আমি স্বস্তির শ্বাস ফেলি……..

হঠাৎ পেছন থেকে খিলখিল করে হেসে ওঠে কেউ। ঘাড় ফিরিয়ে তাকাতেই দেখি কালচে ধোঁয়াসার জমাট বাঁধা একটা মানবী দাঁড়িয়ে…….

হাসির শব্দে দুলে ওঠে চারদিক। পাখির চেচামেচি থেমে যায়। গাছের পাতার ফিসফিসানী বন্ধ হয়।। বয়ে চলা বাতাস অলসতায় দাঁড়িয়ে যায় কিছুক্ষন।

অশরীরি মানবীর হাসি থেমে যায়। শব্দ শুরু করে গাছের পাতারা। বাতাস চলতে শুরু করে শূন্যতার অনু ভেদ করে।

ধরা গলায় গভীর অপরাধবোধ নিয়ে বলতে থাকে……দেহহীন ধোঁয়াশে মানবী………
—–আমি চলে যাচ্ছি। তবে আবার আসবো। তোমার জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত থেকে যাবো, তোমার চারিপাশে প্রতিক্ষন, প্রতি মূহুর্তে।
আমার থেকে কোন দিন মুক্তি পাবেনা তুমি। কোন দিন না, কোন দিন না, না, না, না,…..
বলতে বলতে শূন্যে মিলিয়ে যায় অচেনা অশরীরি ছাঁয়া মানবী।

print

Comments

comments

সর্বশেষ আপডেট



এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সদস্য মণ্ডলী : –

উপদেষ্টা : ডা রফিকুল ইসলাম বিজলী
আইন উপদেষ্টা : এ্যড জামাল হোসেন মুন্না
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুজাহিদুল ইসলাম নাইম
সম্পাদক ও প্রকাশক : মাহির শাহরিয়ার শিশির
বার্তা সম্পাদক: সৈকত মাহমুদ
নির্বাহী সম্পাদক : মনেম শাহরিয়ার শাওন
মফস্বল সম্পাদক : সপ্ন মাহমুদ

যোগাযোগ : –

সম্পাদকীয় কার্যালয় : ২৩/৩, তোপখানা রোড,
৪র্থ তালা (পাক্ষিক অনিয়ম এর পাশে ঢাকা - ১০০০
কর্পোরেট অফিস : সুইট :৩০০৯, লেভেল : ০৩, হাজি
আসরাফ শপিং কমপ্লেক্স, হেমায়েতপুর, সাভার, ঢাকা
09602111463,09602333111,01611354077
fb.com/bartakantho | info@bartakantho.com

Design & Devaloped BY The Creation IT BD Limited | সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © বার্তাকণ্ঠে প্রকাশিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র ও অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি।