বিকাল ৪:৩৫ | বুধবার | ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

বর্তমান কমিশন অনেক কঠোর: ইসি সচিব

প্রকাশ : ১৯ ডিসেম্বর ২০১৭, ১৫:১২ | আলফাডাঙ্গা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি, বার্তাকন্ঠ

ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা পৌরসভা ও তিনটি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে কোনো ধরনের সামান্য ভুল-ত্রুটিও নির্বাচন কমিশন মাফ করবে না বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনের ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ। তিনি বলেন, ‘বর্তমান নির্বাচন কমিশন অনেক কঠিন। আগের চেয়ে অনেক কঠোর। যতক্ষণ না সুষ্ঠু নির্বাচন হবে ততক্ষণ পর্যন্ত নির্বাচন দেয়া হবে, এটা কিন্তু মাফ নেই।’

মঙ্গলবার সকালে আলফাডাঙ্গা পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের সাথে মতবিনিময় সভায় তিনি এই কথা বলেন। উপজেলা মিলনায়তনে এই সভার আয়োজন করা হয়। আগামী ২৮ ডিসেম্বর আলফাডাঙ্গা পৌরসভা ও আলফাডাঙ্গা, বুড়াইচ ও গোপালপুর ইউনিয়নে ভোট হবে।

ইসি সচিব বলেন, ‘যদি কোনো প্রার্থী কোনো কেন্দ্রে গণ্ডগোল করেন ওই ভোট সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করার জন্য একবার নয় আমরা প্রয়োজন হলে দশবার নির্বাচন দেবো। কোনো কেন্দ্রে ভোট হয়ে যাওয়ার পর যদি শুনি বাক্সতে আগের রাতে ব্যালট পেপার ঢুকিয়ে রাখা হয়েছে, তাহলে আমরা ব্যবস্থা নেব। প্রিসাইডিং অফিসার ঘোষণা দেয়ার পরও কিন্তু আমাদের ক্ষমতা আছে, প্রয়োজনে আবার নির্বাচন করাব।’

সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য ইসির কঠোর অবস্থানের কথা উল্লেখ করে সচিব বলেন, ‘নির্বাচনে কোনো সরকারি কর্মকর্তা যদি সেটা আনসার-ভিডিপি হোক, পুলিশ হোক, প্রিসাইডিং অফিসার হোক, পোলিং অফিসার হোক, সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার হোক, আমাদের ম্যাজিস্ট্রেট হোক, যে কেউ যদি সে কোনো প্রার্থীর পক্ষে কাজ করে তাহলে চাকরি থাকবে না।’

সচিব বলেন, ‘কোনো ধরনের সামান্য ভুল-ত্রুটিও যদি হয় তাহলে নির্বাচন কমিশন মাফ করবে না। আপনাদের ভয় পাওয়ার  কোনো কারণ নেই।’

হেলালুদ্দীন বলেন, ‘আপনাদের কাছে আমার একটা দাবি আছে। আপনারাও নির্বাচন আচরণবিধি মেনে চলবেন। আপনারা সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানে সহযোগিতা করবেন।’

সচিব বলেন, ‘আলফাডাঙ্গা নতুন পৌরসভায়। শুরুতেই যেন এই পৌরসভায় কোনো কালিমা না পড়ে সে জন্য আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাব। আপনারা যদি সুষ্ঠুভাবে, সুন্দরভাবে ভোট প্রদান করেন, শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখেন, আমি সরকারের সচিব হিসেবে এই পৌরসভার উন্নয়নের জন্য কাজ করতে চেষ্টা করব।’

মতবিনিময় সভায় বুড়াইচ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী আহসানউদ্দৌলা রানা অভিযোগ করেন, তার ইউনিয়নের নির্বাচনে কালো টাকার ব্যবহার হচ্ছে। জবাবে নির্বাচন কমিশন সচিব বলেন, ‘আমরা যদি দেখি ভোটের আগের দিন বা দুদিন আগে কেউ টাকা নিয়ে ঘোরাঘুরি করছে, তাহলে টাকা তার যাবেই; টাকা যে বিলি করবে তাকেও গ্রেপ্তার করা হবে।’

সভার শুরুতে পৌরসভার মেয়র, কাউন্সিলর, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও সদস্য প্রার্থীরা তাদের বক্তব্য তুলে ধরেন।

আলফাডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়ন্তী রূপা রায়ের সভাপতিত্বে আরও বক্তৃতা করেন ফরিদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এরাদুল হক, ফরিদপুর জেলার পুলিশ সুপার (ভারপ্রাপ্ত) মো. জামাল পাশা, ফরিদপুরের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. নুরুজ্জামান তালুকদার, র‌্যাব-৮ এর কোম্পানি অধিনায়ক মো. রইছউদ্দিন, ফরিদপুর জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মাদ হাবিবুর রহমান, ফরিদপুর জেলা আনসার ও ভিডিপি কমান্ড্যান্ট এনামুল খাঁন, আলফাডাঙ্গার নির্বাচন কর্মকর্তা মমতাজ আল শিবলী, আলফাডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নাজমুল করিম প্রমুখ।

Comments

comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» ৫ নং রাজনগর ইউনিয়ন ১-০ গোলে হারালো পেড়িখালি ইউনিয়নকে

» আলফাডাঙ্গায় পূর্বশত্রুতার জের ধরে বৃদ্ধ মাতা সহ ২ সহোদর রক্তাক্ত জখম

» একটা মানবিক সাহায্যের প্রয়োজন

» স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা ” তারিক সাঈদ ” এর জন্মদিন

» গাছ লাগান, পরিবেশ বাঁচান’ : আশিক খান

» পদ্মায় লঞ্চঘাট ধস: আল আমিনকে পেতে পরিবারের আকুতি

» Teams

» TC team

» আলফাডাঙ্গায় জুয়া খেলার প্রতিবাদ করায় ইউপি সদস্যকে হত্যার হুমকি

» রুর‌্যাল জার্নালিষ্ট ফাউন্ডেশন (আরজেএফ)’র আলফাডাঙ্গা শাখার দ্বিবার্ষিক কমিটি গঠন

» সমাহার সফট চালু করলো করপোরেট বাল্ক এসএমএস

» আরজেএফ কেন্দ্রীয় কমিটিতে আলফাডাঙ্গার কামরুল ইসলাম নির্বাচিত

» “মধুমতি পাড়ের লেখিয়ে গ্রুপ”

» Test

» জেনে নিন টনসিলের ব্যথা দূর করার সহজ সমাধান !!

Archive Calendar

ডিসেম্বর ২০১৭
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
« নভেম্বর   জানুয়ারি »
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  

সদস্য মণ্ডলী : –

উপদেষ্টা : ডা রফিকুল ইসলাম বিজলী
আইন উপদেষ্টা : এ্যড জামাল হোসেন মুন্না
সম্পাদক ও প্রকাশক : মাহির শাহরিয়ার শিশির
বার্তা সম্পাদক: সৈকত মাহমুদ
নির্বাহী সম্পাদক : মনেম শাহরিয়ার শাওন

যোগাযোগ : –

সম্পাদকীয় কার্যালয় : সুইট :৩০০৯, লেভেল : ০৩, হাজি
আসরাফ শপিং কমপ্লেক্স, হেমায়েতপুর, সাভার, ঢাকা
09602111463,09602333111,01611354077
fb.com/bartakantho | info@bartakantho.com

Design & Devaloped BY The Creation IT BD Limited | সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © বার্তাকণ্ঠে প্রকাশিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র ও অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি।

বিকাল ৪:৩৫, ,

বর্তমান কমিশন অনেক কঠোর: ইসি সচিব

প্রকাশ : ১৯ ডিসেম্বর ২০১৭, ১৫:১২ | আলফাডাঙ্গা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি, বার্তাকন্ঠ

ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা পৌরসভা ও তিনটি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে কোনো ধরনের সামান্য ভুল-ত্রুটিও নির্বাচন কমিশন মাফ করবে না বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনের ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ। তিনি বলেন, ‘বর্তমান নির্বাচন কমিশন অনেক কঠিন। আগের চেয়ে অনেক কঠোর। যতক্ষণ না সুষ্ঠু নির্বাচন হবে ততক্ষণ পর্যন্ত নির্বাচন দেয়া হবে, এটা কিন্তু মাফ নেই।’

মঙ্গলবার সকালে আলফাডাঙ্গা পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের সাথে মতবিনিময় সভায় তিনি এই কথা বলেন। উপজেলা মিলনায়তনে এই সভার আয়োজন করা হয়। আগামী ২৮ ডিসেম্বর আলফাডাঙ্গা পৌরসভা ও আলফাডাঙ্গা, বুড়াইচ ও গোপালপুর ইউনিয়নে ভোট হবে।

ইসি সচিব বলেন, ‘যদি কোনো প্রার্থী কোনো কেন্দ্রে গণ্ডগোল করেন ওই ভোট সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করার জন্য একবার নয় আমরা প্রয়োজন হলে দশবার নির্বাচন দেবো। কোনো কেন্দ্রে ভোট হয়ে যাওয়ার পর যদি শুনি বাক্সতে আগের রাতে ব্যালট পেপার ঢুকিয়ে রাখা হয়েছে, তাহলে আমরা ব্যবস্থা নেব। প্রিসাইডিং অফিসার ঘোষণা দেয়ার পরও কিন্তু আমাদের ক্ষমতা আছে, প্রয়োজনে আবার নির্বাচন করাব।’

সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য ইসির কঠোর অবস্থানের কথা উল্লেখ করে সচিব বলেন, ‘নির্বাচনে কোনো সরকারি কর্মকর্তা যদি সেটা আনসার-ভিডিপি হোক, পুলিশ হোক, প্রিসাইডিং অফিসার হোক, পোলিং অফিসার হোক, সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার হোক, আমাদের ম্যাজিস্ট্রেট হোক, যে কেউ যদি সে কোনো প্রার্থীর পক্ষে কাজ করে তাহলে চাকরি থাকবে না।’

সচিব বলেন, ‘কোনো ধরনের সামান্য ভুল-ত্রুটিও যদি হয় তাহলে নির্বাচন কমিশন মাফ করবে না। আপনাদের ভয় পাওয়ার  কোনো কারণ নেই।’

হেলালুদ্দীন বলেন, ‘আপনাদের কাছে আমার একটা দাবি আছে। আপনারাও নির্বাচন আচরণবিধি মেনে চলবেন। আপনারা সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানে সহযোগিতা করবেন।’

সচিব বলেন, ‘আলফাডাঙ্গা নতুন পৌরসভায়। শুরুতেই যেন এই পৌরসভায় কোনো কালিমা না পড়ে সে জন্য আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাব। আপনারা যদি সুষ্ঠুভাবে, সুন্দরভাবে ভোট প্রদান করেন, শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখেন, আমি সরকারের সচিব হিসেবে এই পৌরসভার উন্নয়নের জন্য কাজ করতে চেষ্টা করব।’

মতবিনিময় সভায় বুড়াইচ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী আহসানউদ্দৌলা রানা অভিযোগ করেন, তার ইউনিয়নের নির্বাচনে কালো টাকার ব্যবহার হচ্ছে। জবাবে নির্বাচন কমিশন সচিব বলেন, ‘আমরা যদি দেখি ভোটের আগের দিন বা দুদিন আগে কেউ টাকা নিয়ে ঘোরাঘুরি করছে, তাহলে টাকা তার যাবেই; টাকা যে বিলি করবে তাকেও গ্রেপ্তার করা হবে।’

সভার শুরুতে পৌরসভার মেয়র, কাউন্সিলর, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও সদস্য প্রার্থীরা তাদের বক্তব্য তুলে ধরেন।

আলফাডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়ন্তী রূপা রায়ের সভাপতিত্বে আরও বক্তৃতা করেন ফরিদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এরাদুল হক, ফরিদপুর জেলার পুলিশ সুপার (ভারপ্রাপ্ত) মো. জামাল পাশা, ফরিদপুরের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. নুরুজ্জামান তালুকদার, র‌্যাব-৮ এর কোম্পানি অধিনায়ক মো. রইছউদ্দিন, ফরিদপুর জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মাদ হাবিবুর রহমান, ফরিদপুর জেলা আনসার ও ভিডিপি কমান্ড্যান্ট এনামুল খাঁন, আলফাডাঙ্গার নির্বাচন কর্মকর্তা মমতাজ আল শিবলী, আলফাডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নাজমুল করিম প্রমুখ।

Comments

comments

সর্বশেষ আপডেট



এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সদস্য মণ্ডলী : –

উপদেষ্টা : ডা রফিকুল ইসলাম বিজলী
আইন উপদেষ্টা : এ্যড জামাল হোসেন মুন্না
সম্পাদক ও প্রকাশক : মাহির শাহরিয়ার শিশির
বার্তা সম্পাদক: সৈকত মাহমুদ
নির্বাহী সম্পাদক : মনেম শাহরিয়ার শাওন

যোগাযোগ : –

সম্পাদকীয় কার্যালয় : সুইট :৩০০৯, লেভেল : ০৩, হাজি
আসরাফ শপিং কমপ্লেক্স, হেমায়েতপুর, সাভার, ঢাকা
09602111463,09602333111,01611354077
fb.com/bartakantho | info@bartakantho.com

Design & Devaloped BY The Creation IT BD Limited | সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © বার্তাকণ্ঠে প্রকাশিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র ও অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি।